শিল্পীদের আয়ু আরো দীর্ঘ হওয়া উচিত: রোকেয়া প্রাচী

নয়ন আহম্মেদ

বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ৩০, ২০২০ ৩:৩০ অপরাহ্ণ

২০১৭ সালের ২৭ অক্টোবর মুক্তি পেয়েছিল চলচ্চিত্র ‘ডুব’। বাংলাদেশ, ভারত ও অস্ট্রেলিয়ায় একযোগে মুক্তি পায় ছবিটি। ছবিটি পরিচালনা করেন মোস্তফা সরয়ার ফারুকী। পরিচালনার পাশাপাশি চলচ্চিত্রটির গল্প ও চিত্রনাট্য করেছেন তিনি। চলচ্চিত্রটি প্রযোজনা করেছে বাংলাদেশের জাজ মাল্টিমিডিয়া, ভারতের এস কে মুভিজ ও ইরফান খান ফিল্মস। প্রযোজনার পাশাপাশি ছবিটিতে অভিনয় করেন ইরফান খান। ‘ডুব’ চলচ্চিত্রে ইরফান খান ছাড়াও অভিনয় করেছেন রোকেয়া প্রাচী, নুসরাত ইমরোজ তিশা ও পার্নো মিত্র।

কোলন ইনফেকশন নিয়ে গতকাল মুম্বাইয়ের কোকিলাবেন ধিরুবাই আম্বানি হাসপাতালে ভর্তির কয়েক ঘণ্টা পর মারা গেছেন ব্যতিক্রমী ধারার বলিউড-হলিউড অভিনেতা ইরফান খান। মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর ছবিতে অভিনয় ও তাঁর প্রতি বিশ্বাস রেখে বিনিয়োগ করেছিলেন ইরফান খান। সকালে উঠেই তাঁর মৃত্যুর খবর যেন বিশ্বাসই করতে পারছিলেন না ফারুকী। নিজের ফেসবুকে লেখেন, ‘অবিশ্বাস্য খারাপ খবর দিয়ে দিনটা শুরু হলো।’

ফারুকী বা ইরফান খানের ভক্তরা শোক ও সমবেদনা জানালেও ফারুকী কোনো উত্তর দিচ্ছেন না। যেন প্রিয় অভিনেতার মৃত্যুতে তিনি বাকরুদ্ধ! ‘ডুব’ ছবিতে ইরফান খানের স্ত্রীর চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন রোকেয়া প্রাচী। এ দাপুটে অভিনেতার অকাল মৃত্যুতে বাকরুদ্ধ রোকেয়া প্রাচী।

তিনি বলেন, অভিনেতা ইরফান খানের অকালে মৃত্যু মেনে নিতে খুব কষ্ট হচ্ছে। তার মৃত্যুতে শুধু ইন্ডিয়া ইন্ডাস্ট্রি নয় গোটা ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি বঞ্চিত হলাম। সিনেমা অনেক মিরাক্কেল হয়। আমরা সিনেমায় দেখতে পাই অনেক কঠিন অসুখ জয় করেও ফেরত আসে। এমন একজন অভিনেতা ইরফান খান ক্যান্সার জয় করে ফেরত আসলেও আসতে পারতেন। তবে তিনি আসলেন না সবাই কে কাঁদিয়ে না ফেরার দেশে চলে গেলেন। শিল্পীদের আয়ু আরো দীর্ঘ হওয়া উচিত। খুব খারাপ লাগছে। শিল্পীর আয়ু কেন দীর্ঘ হচ্ছে না! মানুষ পৃথিবীতে আসে বিদায় নেওয়ার জন্য।

তার সাথে কাজের অভিজ্ঞতা জানিয়ে এ অভিনেত্রী বলেন, অসাধারণ একজন মেধামননে শিল্পী ছিলেন তিনি। তার সাথে কাজ করতে পারা বড় আনন্দের ছিল। অসাধারণ একটি অভিজ্ঞতা ছিল। অত্যন্ত দাপুটে একজন অভিনেতা। তার সাথে কাজ করে অনেক কিছু শিখেছি। এ রকম অভিনেতা বেঁচে থাকলে ভালো হতো। মানুষ হিসেবে যেমন অসাধারণ ছিলেন, তেমনি অভিনেতা হিসেবে ভীষণ পেশাদারী ছিলেন। নিজের কাজটি শতভাগ দায়িত্ব নিয়ে করতেন। তার ডায়েরীতে ফাঁকিবাজি ছিল না। শট দিয়ে নিজে সন্তুষ্ট না হলে বারবার দিতেন। খুব দরতের সাথে অভিনয় করতেন। সহশিল্পী হিসেবে কো-অপারেটিভ ছিলেন। এরকম একজন শিক্ষিত অসাধারণ মাপের অভিনেতা যখন থাকে তখন আরেকজন শিল্পীর অভিনয় করতে সহজ-সাবলীল হয়। তার অকাল মৃত্যু গোটা বিশ্বকে শোকের সাগরে ভাসিয়ে গেল। ওপারে ভালো থাকবেন।

ছবির গল্পে দেখা যায়, পরিবারের প্রধান সদস্যের মৃত্যুর পর দুটি পরিবারের অটুট বন্ধনের গল্প। যেখানে একজন মধ্যবয়স্ক লেখক এক তরুণীর প্রেমে পড়েন, যিনি তাঁর মেয়ের বন্ধু। চলচ্চিত্রটির প্রধান ভাষ্য হচ্ছে, মৃত্যু সব সময় সব কিছু নিয়ে যায় না, অনেক সময় কিছু দিয়েও যায়।

২০১৬ সালের মার্চ মাসে ছবির শুটিং শুরু হয়। চলচ্চিত্রটির মূল শুটিং হয়েছে পার্বত্য চট্টগ্রাম, সিলেট ও ঢাকায়। শুটে অংশ নিতে ২০১৬ সালের ১৭ মার্চ বলিউড ও হলিউড চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেতা ইরফান খান ভারত থেকে ঢাকায় আসেন। ইরফান খান তখন জানিয়েছিলেন, ফারুকীর গল্পটি পড়ার পর তিনি চলচ্চিত্রটির ব্যাপারে আগ্রাহী হন। তিনি ফারুকীর পরিচালনা, স্টাইল ও কাজের ধরন দেখে বিস্মিত হয়েছেন। তাঁর কাজ আলাদাভাবে মানবিক দিক তুলে ধরে, যা তাঁকে সবার চেয়ে আলাদা করেছে।

image_printPrint

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

মুজিব বর্ষ

মুজিববর্ষ

সংবাদ আর্কাইভ

নামাজের সময় সূচী

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৩:৫৪
  • ১২:০৭
  • ৪:৪৩
  • ৬:৫৩
  • ৮:১৮
  • ৫:১৮

ক্যালেন্ডার

July 2020
M T W T F S S
« Jun    
 12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
2728293031